কৃষি যান্ত্রিকীকরণে ৩২০০ কোটি টাকার প্রকল্প

কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, ‘কৃষি যান্ত্রিকীকরণে ৩২০০ কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নিয়েছে কৃষি মন্ত্রণালয়। এ প্রকল্প শিগগিরই পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে।’ তিনি বলেন, ‘আশা করি জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি একনেকে এ প্রকল্প পাস হবে।’

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রীর কনফারেন্স রুমে বাংলদেশে কাজুবাদাম চাষ ও রপ্তানির বিষয়ে এক বৈঠকে কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক এ কথা জানান। বৈঠকে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান উপস্থিত ছিলেন। এসময় ‘গ্রিনগ্রেইন গ্রুপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর শাকিল আহমেদ তানভির বাংলাদেশে কাজুবাদাম চাষে সম্ভাবনার ও চ্যালেঞ্জের বিষয় তুলে ধরেন।

কৃষিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘টেকসই কৃষি উন্নয়নের জন্য কৃষি বাণিজ্যিকীকরণ করতে হবে। আধুনিক কৃষি যান্ত্রিকীকরণ ও কৃষির বহুমুখিকরণের মাধ্যমেই কৃষির উন্নয়ন সম্ভব।’ তিনি আরো বলেন, ‘‘আমরা দানাদার ফসলে সয়ংসম্পূর্ণ। আমরা চাহিদার চেয়ে আলু বেশি উৎপাদন করছি। এখন আমাদের উৎপাদিত উদ্বৃত্ত ফসল রপ্তানির জন্য কাজ করছি। ‘সরকার গুরুত্ব দিয়েছে অপ্রচলিত ফসলের দিকে। আমি মন্ত্রী হওয়ার পর ছয় হাজার কাজুবাদাম চারা এনেছি। এ চারা কৃষকে দেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *