চেরি টমেটো চাষে স্বাবলম্বী

চেরি টমেটো চাষ করে স্বাবলম্বী হওয়া উচ্চ শিক্ষিত ও উদ্যোমী একজন চাষীর নাম শাহরিয়ার রহমান সাগর। তিনি জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার থুপসারা-নওপাড়া গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে বলে জানা গেছে।

শাহরিয়ার রহমান সাগর জানান, মাত্র এক বিঘা জমিতে চেরি টমেটো চাষ করে সব খরচ বাদ দিয়ে বেশ লাভবান হয়েছেন তিনি। ক্ষেত থেকে এ সবজি অন্তত চার মাস বিক্রি করা যাবে। যে হারে চেরি টমেটো বিক্রি হচ্ছে, তাতে এ সবজি চাষে মৌসুম শেষে তার লাভ হবে অন্তত চার লাখ টাকা। যে কোন সমস্যায় তিনি স্থানীয় কৃষি বিভাগের পরামর্শ নিচ্ছেন।

জানা গেছে, কৃষক শাহরিয়ার রহমান সাগর সমাজ বিজ্ঞান বিষয়ে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০১৪ সালে বিএসএস (অনার্স) এবং ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০১৬ সালে এমএসএস ডিগ্রি লাভ করেন। কিন্তু চাকুরির পিছনে না ঘুরে কৃষি কাজে মন দেন তিনি। অল্প দিনের মধ্যেই সফল হোন তিনি।

এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) ফুড ইঞ্জিনিয়ার বিভাগের ছাত্র- একই গ্রামের রুহুল আমিন নামে এক ছোট ভাইয়ের পরামর্শে মাত্র এক বিঘা জমিতে চেরি টমেটো চাষ করেছেন। ফলন ভাল হয়েছে।

আশা করা হচ্ছে অন্তত ২ হাজার কেজি সবজি বিক্রি করা যাবে। তাই অল্প খরচেই বেশি লাভের সম্ভাবনা রয়েছে। প্রতি কেজি চেরি টমেটো ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা দরে ঢাকার আগোড়াসহ কয়েকটি ডিপার্টম্যান্টাল স্টোরের কাছে বিক্রি করছেন তিনি। এতে সবমিলে তার ৭০ হাজার টাকা খরচ হলেও লাভ টিকবে অন্তত চার লাখ টাকা।

শাহরিয়ার রহমান সাগরের সফলতা দেখে একই গ্রামের ফিরোজ হোসেন, জাহিদুল হাসান সুমনসহ অন্যান্য শিক্ষিত-বেকার তরুণ ও যুবকরা আগামীতে চেরি টমোটা চাষে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান জানান, শাহরিয়ার রহমান সাগর এ জেলার চেরি টমেটো চাষী। কৃষি বিভাগ চেরি টমোটো চাষে তাকে সব ধরণের পরামর্শ ও সহযোগিতা প্রদান অব্যাহত রেখেছে।

জৈব সার ও সেক্স ফেরোমন ফাঁদ পদ্ধতিতে চেরি টমেটো চাষ করে লাভবান হওয়ার পাশাপাশি উদ্যোমী এ কৃষক নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনে ভ‚মিকা রাখবেন বলেও তিনি বিশ্বসী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *