টেকসই কৃষি উন্নয়নে আরও মানসম্মত গবেষণার তাগিদ কৃষিমন্ত্রীর

কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, ভবিষ্যতে খাদ্য নিরাপত্তা ধরে রাখতে হলে আরও মানসম্পন্ন ও কার্যকর গবেষণা পরিচালনা করতে হবে। কৃষিতে অসাধারণ সাফল্য সত্ত্বেও টেকসই কৃষি উন্নয়নের জন্য অনেক চ্যালেঞ্জ রয়েছে। এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় কৃষি গবেষণাকর্ম কৌশল নির্ধারণ, দক্ষতার সঙ্গে গবেষণা প্রকল্প নির্ধারণ এবং আরও মানসম্পন্ন গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।

মঙ্গলবার (১ জুন) বিকেলে ঢাকায় বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল (বিএআরসি) মিলনায়তনে বিএআরসি আয়োজিত জাতীয় কৃষি গবেষণা সিস্টেমভুক্ত (নার্স) প্রতিষ্ঠানসমূহের গবেষণার মান উন্নয়নের জন্য বিশেষজ্ঞ প্যানেলের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় মন্ত্রী ক্রমবর্ধমান জনগোষ্ঠীর নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্য নিশ্চিত করতে দক্ষতার সঙ্গে গবেষণা পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য কৃষি গবেষক ও বিজ্ঞানীদের প্রতি আহ্বান জানান।

বিএআরসি নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ারের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম। এছাড়াও কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (গবেষণা), ‘ক’ তফসিলভুক্ত গবেষণা প্রতিষ্ঠানসমূহের মহাপরিচালকরা, বিশেষজ্ঞ প্যানেলের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল (বিএআরসি) কৃষি গবেষণা সিস্টেমভুক্ত (এনএআরএস) এর এপেক্স বডি হিসেবে কাজ করে। এনএআরএসভুক্ত জাতীয় প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে- পাঁচটি পৃথক মন্ত্রণালয়ের অধীন ১৪টি কৃষি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ বিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান।

এসব গবেষণা প্রতিষ্ঠানসমূহ নতুন জাত ও প্রযুক্তি উদ্ভাবনের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ২০০৯ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ৬৫৫টি উচ্চফলনশীল জাত এবং ৫৯১টি প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছে।